Advertisements
Skip to content

করোনাযুদ্ধে বাংলাদেশের পাশে থাকবে চীন

করোনাভাইরাস মোকাবিলায় বাংলাদেশকে সব ধরনের সহযোগিতা দেওয়ার প্রতিশ্রুতি দিয়েছে চীন। ঢাকায় নিযুক্ত চীনা রাষ্ট্রদূত লি জি মিং গতকাল সোমবার সন্ধ্যায় এক খোলা চিঠিতে এ কথা জানান।

চিঠিতে তিনি বলেন, ‘করোনাভাইরাস মোকাবিলায় আমরা গভীরভাবে বাংলাদেশের সঙ্গে সম্পৃক্ত। চীনে যখন করোনাভাইরাসের বিস্তৃতি ঘটে, তখন বাংলাদেশের প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনা সমবেদনা জানিয়ে আমাদের প্রেসিডেন্ট শি জিন পিংকে চিঠি দিয়েছিলেন। সে সময় বাংলাদেশের সরকার ও সমাজের প্রতিনিধিরা চীনকে মেডিকেল সরঞ্জাম দিয়ে সহায়তাও দিয়েছে। বাংলাদেশে করোনা মোকাবিলায় চীন ৪০ হাজার ৫০০ টেস্ট কিট, ১৫ হাজার সার্জিক্যাল মাস্ক, তিন লাখ মেডিকেল মাস্ক, ১০ হাজার গাউন ও এক হাজার থার্মোমিটার সহায়তা দিয়েছে। এ ছাড়া চীন দূতাবাস ভিডিও কনফারেন্সের মাধ্যমে চীনের চিকিৎসা বিশেষজ্ঞদের সঙ্গে বাংলাদেশের বিশেষজ্ঞদের মতবিনিময়েরও ব্যবস্থা করেছে। আমরা জানাতে চাই, করোনা প্রতিরোধে বাংলাদেশের যে কোনো ধরনের রাজনৈতিক সিদ্ধান্তে চীনা দূতাবাস পাশে থাকবে। এ মহামারির সময় ও মহামারি শেষেও বাংলাদেশের প্রকল্প বাস্তবায়ন নিশ্চিত করা হবে।

চিঠিতে তিনি আরও বলেন, বর্তমানে সারাবিশ্বের সঙ্গে সঙ্গে বাংলাদেশেও করোনাভাইরাস বিস্তৃত হচ্ছে। এখন পর্যন্ত বাংলাদেশে ৪৯ জন এ ভাইরাসে আক্রান্ত হয়েছেন। করোনাভাইরাস সারাবিশ্বের মানুষের নিরাপত্তার জন্যই হুমকি। ২৯ মার্চ পর্যন্ত এ ভাইরাস বিশ্বের ১৯৯টি দেশে বিস্তৃত হয়েছে। প্রতিটি দেশই এ বিষয়ে পদক্ষেপ নিয়েছে। শুধু বাংলাদেশ নয়, করোনার এ ক্রান্তিকালে চীন এরই মধ্যে বিশ্ব স্বাস্থ্য সংস্থাকে (ডব্লিউএইচও) ২০ মিলিয়ন মার্কিন ডলার দিয়েছে। এ ছাড়া বিম্বের ৮৯টি দেশে মেডিকেল সরঞ্জাম দিয়ে তারা সহায়তা করছে

Advertisements
%d bloggers like this: