Advertisements
Skip to content

এ লড়াইয়ে আমাদের জিততেই হবে।

91593768_1383916425152696_5081261639076937728_n

দেখতে দেখতে পৃথিবীটা যেন কেমন হয়ে গেলো তাইনা? গত মাসের এই দিনেও আমরা এমন ছিলাম না। শুধু শোনা যাচ্ছিল করোনার পদধবনি। এই এক মাসে হাজার হাজার মানুষ দুনিয়া ছেড়ে গেলো। অসুস্থ হয়ে পড়ছেন অগনিত। হয়ত ৯০ ভাগ মানুষ গৃহবন্দী। বাকী ১০ ভাগ মানুষ কাজ করছেন বাইরে। এটা একটা লড়াই। মানব সভ্যতার টিকে থাকবার লড়াই। এ লড়াইয়ে আমাদের জিততেই হবে। তা নয়ত আমাদের অস্তিত্ব বিপন্ন হয়ে যাবে।

হলিউডের সাইন্স ফিকশন মুভি দেখে আমরা রোমাঞ্চিত হতাম। গডজিলা এসে নিউইয়র্ক লন্ডভন্ড করে দিচ্ছে, কিংবা আই এম লিজেন্ড এ উইল স্মিথ একাই লড়ে যাচ্ছেন জম্বিদের সাথে। সেই নিউইয়র্ক গুলো ছিলো ছবির সাজানো সেট। আর আজকের নিউইয়র্ক, হলিউডের কোন ছবির সেট নয়। যে নিউইয়র্কে সারা রাত গাড়ি চালিয়ে ঘুরেও এক ফোটা ভয় লাগেনি। সেই একই শহরে রাত হবার পর গা ছমছম করে। প্রতিটা বাড়ি স্তব্ধ হয়ে আছে। মানুষ আছে কি নেই বোঝা যায় না। সারি সারি দোকানগুলো বন্ধ। রেস্টুরেন্টগুলো খা খা করে।

মাঝে মাঝে বিরক্ত হয়ে বলে উঠতাম, কিসের নিউইয়র্ক, এইটা পুরাই আমাদের ঢাকার মগবাজার। ট্রাফিক, মানুষের ভিড় সব মিলিয়ে একই রকম লাগে। জ্যামাইকা হিলস কিংবা জ্যাকসন হাইটস যে এলাকাগুলোতে বাংগালীর ভিড় বেশি,যেখানে চা, সিংগাড়া, কাবাব বা বাংলাদেশি খাবারে ভরপুর রেস্টুরেন্টগুলো অবস্থিত, যেখানে রাত আড়াইটায় ও রাস্তায় দাঁড়িয়ে বন্ধু বান্ধব সিগারেট আর গরম চা হাতে নিয়ে আড্ডা দিত, সেই রাস্তাগুলো স্থবির হয়ে পড়ে রয়েছে। একের পর এক চলে যাচ্ছেন নিউইয়র্ক প্রবাসীরা। মৃত্যুর মিছিল যেন থামছেই না।

বাংলাদেশের খবর দেখি আর চমকে চমকে উঠি। আক্রান্তের খবর শুনি আর আকাশের দিকে তাকিয়ে ভাবি, কি ভাবে কি হবে এখন? দেশের সার্বিক পরিস্থিতি কি সামাল দিতে পারবে সরকার? আমরা সবাই কিন্তু মনে মনে এটাই চাচ্ছি, দেশটা যেন আক্রান্ত না হয়, তেমন বড় খারাপ পরিস্থিতি যেন না হয়। দেশের সুবিধাবঞ্চিত মানুষগুলো তালসামলাতে পারবেনা পরিস্থিতি প্রতিকূলে চলে গেলে।

তারপরও আশায় বুক বাধি আবার। ঝড়, জলোচ্ছাস, বন্যার মত ভয়াবহ সব বিষয় আমরা অতীতেও সামলেছি। হয়ত এ যাত্রায়ও আল্লাহ আমাদের সহায় হবেন। অবুঝ শিশুর মত আমাদের জনগণ। বুঝুক না বুঝুক, তারপরও তারা আমাদেরই ভাই, সবজন। আমেরিকা কিংবা বাংলাদেশের মানুষের মাঝে কোন পার্থক্য আসলে নেই। সব দেশের সব মানুষ আসলে একই রকম। একই রকম তাদের হাসি, কান্না, আনন্দ, অনুভুতি।

আল্লাহ পৃথিবীর সকল মানুষকে এই মহাবিপদ থেকে রক্ষা করুন।

সালেকিন বিন লিয়াকত
নিউইয়র্ক
৬ই মার্চ ২০২০

Advertisements
%d bloggers like this: