Advertisements
Skip to content

জামাতের গুদামে যুবলীগ এর চুরির চাউল

rice-samakal-5eaaf2ffb273f

নারায়ণগঞ্জের বন্দরে একটি গার্মেন্টের গুদাম থেকে স্থানীয় এক যুবলীগ নেতার মজুদ করা ১২০০ বস্তা চাল জব্দ করেছে উপজেলা প্রশাসন। বুধবার মধ্যরাতে গোপন সংবাদের ভিত্তিতে বন্দর উপজেলা নির্বাহী কর্মকর্তা শুক্লা সরকারের নেতৃত্বে পুলিশ উপজেলার কেওঢালা এলাকায় অবস্থিত হায়দার নিট কম্পোজিটের গুদামে অভিযান চালিয়ে চালগুলো উদ্ধার করে।

পুলিশ জানায়, গার্মেন্টের গুদামে চালগুলো মজুদ করেছিলেন মদনপুর ইউনিয়ন যুব লীগের সাধারণ সম্পাদক জাবেদ ভূঁইয়া। তিনি পেশায় একজন ঠিকাদার। আর যে গার্মেন্টের গুদামে চালগুলো মজুদ করা হয়েছিল সেটি কুমিল্লা-১১ (সাবেক-১২) আসনের সাবেক সংসদ সদস্য জামায়াত নেতা আবদুল্লাহ মো. তাহেরের মালিকানাধীন। অভিযানের পর প্রশাসন ওই গুদামটি সিলগালা করে দেয়।

এদিকে রাতেই মজুদ করা চালের মালিক যুব লীগ নেতা জাভেদ ভূঁইয়ার সঙ্গে প্রশাসন থেকে যোগাযোগ করা হলে তিনি বলেন, চালগুলো ত্রাণ দেওয়ার জন্য মজুদ করা হয়েছিল। কিন্তু মজুদ করা চালগুলো চিকন হওয়ায় প্রশাসনের মধ্যে দ্বিধা-দ্বন্দ্ব দেখা দেয়। পরে চালের মালিককে এ সংক্রান্ত প্রয়োজনীয় কাগজপত্র নিয়ে দেখা করতে বলা হয়েছে।

বন্দর থানার ভারপ্রাপ্ত কর্মকর্তা (ওসি) রফিকুল ইসলাম বলেন, বুধবার মধ্যরাতে গোপন সংবাদের ভিত্তিতে হায়দার নিট কম্পোজিটের গুদামে অভিযান চালিয়ে ১ হাজার ২০০ বস্তা চাল মজুদ অবস্থায় পাওয়া যায়। ওই সময় ইউএনওর উপস্থিতিতে এসব চাল জব্দ করে গোডাউনটি সিলগালা করে দেওয়া হয়েছে।

ওসি আরও বলেন, জব্দ করা চালগুলো কোন সরকারি ত্রাণের চাল নয়। এর বৈধ কাগজপত্র আছে দাবি করেছেন চালের মালিকপক্ষ। তাই বিষয়টি খতিয়ে দেখছে উপজেলা প্রশাসন। চালের মালিক চালের কোন বৈধ কাগজপত্র নিয়ে বৃহস্পতিবার বিকেল পর্যন্ত প্রশাসনের কারও সঙ্গে সাক্ষাত করেননি।

বন্দর উপজেলার নির্বাহী কর্মকর্তা (ইউএনও) শুক্লা সরকার বলেন, আমরা ১ হাজার ২০০ বস্তা চাল জব্দ করে গোডাউন সিলগালা করে দিয়েছি। এগুলো কোন সরকারি ত্রাণের কিংবা সরকারি চাল না। কোন বেসরকারি রাইস এজেন্সি থেকে চালগুলো আনা হয়েছে। তবে এ সময় কাউকে আটক করা হয়নি।

তিনি বলেন, দেশের এমন পরিস্থিতিতে অবৈধ ভাবে চাল মজুদ করা হয়েছে সন্দেহে সেগুলো জব্দ করা হয়। তবে যিনি এ চাল মজুদ করেছেন তিনি দাবি করেছেন এগুলো অসহায় মানুষকে ত্রাণ দেওয়ার জন্যই আনা হয়েছে। এজন্য তাকে বৈধ কাগজপত্র নিয়ে আসতে বলা হয়েছে।  বিষয়টি ক্ষতিয়ে দেখা হচ্ছে। যদি তিনি বৈধ কাগজপত্র দেখাতে পারেন এবং সত্যই ত্রাণের জন্য নিয়ে এসে থাকেন তাহলে উপজেলা প্রশাসনের উপস্থিতিতে ওইসব চাল বিতরণ করা হবে। অন্যথায় অবৈধ মজুদের অপরাধে তার বিরুদ্ধে আইনগত কঠোর ব্যবস্থা গ্রহণ করা হবে।

Advertisements
%d bloggers like this: