Advertisements
Skip to content

করোনাকে যেভাবে “ধবংস” করে কালোজিরা

safe_image.php

সম্প্রতি কোভিড-১৯ পজিটিভ পাওয়ার পর আইসোলেশনে চলে যান নাইজেরিয়ার ওয়ু প্রদেশের গভর্নর সেয়ি মাকিন্দি। সপ্তাহখানেক পর যখন তার আবার পরীক্ষা করা হয়, তখন নেগেটিভ আসে।

সেয়ি মাকিন্দি বলেন, কোভিড-১৯ এর বিরুদ্ধে লড়াইয়ে তার অস্ত্র ছিল তিনটি– গাজর, ভিটামিন সি এবং মধু দিয়ে কালোজিরার তেল।

তিনি বলেন, এসময়টা তার চেষ্টা ছিল যথাসম্ভব তার রোগ প্রতিরোধ ক্ষমতাকে বাড়িয়ে তোলা, আর সেটাই ফল দিয়েছে।

করোনা ভাইরাস থেকে আরোগ্যলাভের এ ঘটনা নাইজেরিয়াজুড়ে ব্যাপক আলোড়ন সৃষ্টি করে। ৯ এপ্রিল দ্য গার্ডিয়ানে খবরটি প্রকাশিত হয়।

সম্প্রতি কেম-আর্কাইভে প্রকাশিত এক গবেষণায় কালোজিরার উপকরণ কীভাবে কোভিড-১৯ কে প্রতিহত করতে পারে, তা প্রকাশের পর থেকেই এ নিয়ে ব্যাপক আলোচনার সৃষ্টি হয়।

‘Identification of Compounds from Nigella Sativa as New Potential Inhibitors of 2019 Novel Coronavirus (COVID-19): Molecular Docking Study’– শিরোনামের এ প্রতিবেদনটি লেখেন গবেষক সেলিম মসিউম। মলিকুলার ডকিং পদ্ধতি ব্যবহার করে তিনি কালোজিরার মধ্যে এমন কিছু উপাদান পান যাকে মনে করা হচ্ছে যে তা কোভিড-১৯ প্রতিরোধ করতে পারবে।

কালোজিরার ওষুধি গুণের সন্ধান মানুষ পেয়েছে আজ থেকে অন্তত দু’হাজার বছর আগে। মাথাব্যথা, দাঁতব্যথা থেকে শুরু করে উচ্চরক্তচাপ, রক্তক্ষরণ এবং ফুসফুসের যে-কোনো সংক্রমণ (এজমা, কফ, ব্রংকাইটিস, ফ্লু, সোয়াইন ফ্লু) কালোজিরা এত কার্যকর যে একে বলা হয় হাব্বাত উল বারাকা বা আশীর্বাদের বীজ।

ভাইরাসজনিত ঠাণ্ডা-জ্বর থেকে সুরক্ষায় কিছু উপাদান রয়েছে যা এ সময় খুব বেশি কাজ করে। এসব খেলে ঠাণ্ডা-জ্বর ভালো হয়ে যায়। এমন একটি উপকারি মসলা হচ্ছে কলোজিরা। এ সময় খেতে পারেন কালোজিরা। কালোজিরা ঠাণ্ডা সারাতে সবচেয়ে ভালো কাজ করে। এছাড়া চায়ের সঙ্গে নিয়মিত কালোজিরা মিশিয়ে অথবা এর তেল বা আরক মিশিয়ে পান করলে হৃদরোগের উপকার হয়।

মসলা হিসেবে কালোজিরার চাহিদা অনেক। কালোজিরার বীজ থেকে তেল পাওয়া যায়। যা মানব শরীরের জন্য খুব উপকারি। এতে আছে ফসফেট, লৌহ, ফসফরাস। এছাড়া এতে রয়েছে ক্যানসার প্রতিরোধক কেরটিন, বিভিন্ন রোগ প্রতিরোধকারী উপাদান এবং অম্ল রোগের প্রতিষেধক। বিশেষ করে কালোজিরা ধবংস করে করোনাকে।

এবার আসুন জেনে নেই কালোজিরার আরও কিছু ঔষধি গুণ-

জ্বর-খুসখুসে কাশি দূর করে  

জ্বর, ও খুসখুসে কাশি, গায়ের ব্যথা দূর করার জন্য কালোজিরা ভীষণ উপকারী। এতে রয়েছে ক্ষুধা বাড়ানোর উপাদান। পেটের যাবতীয় রোগজীবাণু ও গ্যাস দূর করে ক্ষুধা বাড়ায়।

সংক্রামক রোগ

কালোজিরায় রয়েছে অ্যান্টিমাইক্রোরিয়াল এজেন্ট, অর্থাৎ শরীরের রোগজীবাণু ধ্বংসকারী উপাদান। এ উপাদানের জন্য শরীরে সহজে ঘা, ফোঁড়া, সংক্রামক রোগ (ছোঁয়াচে রোগ) হয় না।

উচ্চ রক্তচাপ

কালোজিরা নিম্ন রক্তচাপকে বৃদ্ধি এবং উচ্চ রক্তচাপকে হ্রাসের মাধ্যমে শরীরে রক্তচাপ এর স্বাভাবিক মাত্রা সুনিশ্চিত করতে সহায়তা করে।

ডায়াবেটিক

কালোজিরা ডায়াবেটিক রোগীদের রক্তের শর্করা কমিয়ে ডায়াবেটিক নিয়ন্ত্রণে রাখতে সহায়তা করে।

চুলপড়া বন্ধ করে

কালোজিরা চুলের গোড়ায় পুষ্টি পৌঁছে দিয়ে চুলপড়া বন্ধ করে এবং চুল বৃদ্ধিতে সাহায্য করে। কালোজিরা মস্তিষ্কের রক্ত সঞ্চালন বৃদ্ধির মাধ্যমে স্মরণশক্তি বাড়িয়ে তুলতে সাহায্য করে।

ক্যানসার প্রতিরোধক

অরুচি, উদরাময়, শরীর ব্যথা, গলা ও দাঁতের ব্যথা, মাইগ্রেন, চুলপড়া, সর্দি, কাশি, হাঁপানি নিরাময়ে কালোজিরা সহায়তা করে। ক্যানসার প্রতিরোধক হিসেবে কালোজিরা সহায়ক ভূমিকা পালন করে।

মেদ কমায়
চায়ের সঙ্গে নিয়মিত কালোজিরা মিশিয়ে অথবা এর তেল বা আরক মিশিয়ে পান করলে হৃদরোগে যেমন উপকার হয়, তেমনি মেদ ও বিগলিত হয়।

Advertisements
%d bloggers like this: