Advertisements
Skip to content

নিউইয়র্কের বাংলাদেশ কমিউনিটির পাশে সবাত্মক সহযোগিতা নিয়ে দাড়িঁয়েছিলো আমেরিকায় বাংলাদেশীদের সবচেয়ে বড় সংগঠন বাংলাদেশ সোসাইটি

 

 

করোনাভাইরাসে বির্যযস্ত নিউইয়র্কের বাংলাদেশ কমিউনিটির পাশে সবাত্মক সহযোগিতা নিয়ে দাড়িঁয়েছিলো আমেরিকায় বাংলাদেশীদের সবচেয়ে বড় সংগঠন বাংলাদেশ সোসাইটি। বিনামূল্যে শতাধিক কবরের স্থান দেবার সাথে সাথে জাতি-ধর্ম  নির্বিশেষে করোনায় মৃত পরিবারকে আর্থিক সহায়তা দিয়ে অনসূকরণীয় দৃষ্ঠান্ত স্থাপনরে পর নিউইয়র্ক সিটি প্রশাসনের সহযোগিতায় বাংলাদেশ সোসাইটি অসচ্ছল বাংলাদেশী পরিবারগুলোর মধ্যে খাদ্য সমামগ্রী বিতরন করেছে। গত ২৭ জুন শনিবার বৈরী আবহাওয়ার মধ্যেই দুইশ বক্স খাবার বিতরন করা হয় রুজভের্ট এভিন্যু সংলগ্ন প্যাকেট গ্রহণ করেন।

রুজভেল্ট এভিনিউতে একটি মসজিদের সামনে এই খাদ্য বিতরণ কর্মসূচিতে অতিথির বক্তব্যে ডেমোক্রেটিক পার্টির ডিস্ট্রিক্ট লিডার এট লার্জ এটর্নি মঈন চৌধুরী বলেছেন, বৈশ্বিক এই মহামারি নিয়ে প্রেসিডেন্ট ট্রাম্প রাজনীতি শুরু করেছেন। নাগরিকদের জিম্মি করে তিনি আসছে ৩ নভেম্বরের নির্বাচনী বৈতরণী পাড়ি দেয়ার ফন্দি এঁটেছেন। এজন্যে তাঁরই গঠিত ‘করোনাভাইরাস টাস্ক ফোর্স’র স্বাস্থ্যবিধি অমান্য করে বিভিন্ন স্থানে নির্বাচনী সমাবেশ করছেন। তার অনুগত স্টেট-গভর্নরদের প্ররোচিত করছেন লকডাউন পরিপূর্ণভাবে উঠিয়ে নিতে। যার খেসারত দিচ্ছে ফ্লোরিডা, টেক্সাস, আরিজোনা সহ বিভিন্ন রাজ্য। এহেন অমানবিক চরিত্রের প্রেসিডেন্টকে হটাতে সামনের নির্বাচনে ডেমক্র্যাট বাইডেনকে জয়ী করতে হবে।’

এ সময় বাংলাদেশ সোসাইটির ভারপ্রাপ্ত সভাপতি আব্দুর রহিম হাওলাদার বলেন, ‘করোনায় আক্রান্তদের নানাভাবে আমরা সহায়তা দিয়ে আসছি মধ্য মার্চ থেকেই। সোসাইটির কেনা শতাধিক কবরের জায়গা বিনামূল্যে দেয়া হয়েছে করোনায় প্রাণ হারানো বাংলাদেশীদের লাশ দাফনের জন্যে। ক্ষেত্র বিশেষে আমরা ফিউনারেল খরচও দিয়েছি। বাসায় বাসায় খাদ্য-সামগ্রির প্যাকেট বিতরণ করেছি রমজানেও।’
‘আজকের এসব প্যাকেট আমরা সংগ্রহ করেছি কুইন্স বরো প্রেসিডেন্টের অফিস থেকে। এজন্যে তাদের প্রতি কৃতজ্ঞতা জানাচ্ছি’-উল্লেখ করেন হাওলাদার।

 

 

106229643_10220430409287443_777304632625688671_n

সাধারণ সম্পাদক রুহুল আমিন সিদ্দিকী বলেন, ‘কার্যকরী কমিটির পুরো টিম কাজ করছি করোনায় বিপর্যস্ত বাংলাদেশীদের জন্যে। সকলের আন্তরিক সহায়তা অব্যাহত থাকলে চলমান ক্রান্তিকাল অবশ্যই আমরা উৎরে যেতে সক্ষম হবো।

এ সময়ে সোসাইটির কর্মকর্তাদের মধ্যে আরও উপাস্থিত ছিলেন কোষাধ্যক্ষ মোহাম্মদ আলী, স্কুল ও শিক্ষা সম্পাদক আহসান হাবিব, নির্বাহী সদস্য ফারহানা চৌধুরী, সাদী মিন্টু ও আবুল কাশেম। স্থানীয় কমিউনিটি বোর্ড মেম্বার মুক্তিযোদ্ধা আব্দুল মুকিত চৌধুরী, কমিউনিটি লিডার আজিমুর রহমান বোরহানও ছিলেন খাদ্য-সামগ্রির প্যাকেট বিতরণে।

Advertisements
%d bloggers like this: