Skip to content

যুক্তরাষ্ট্রে অধ্যয়নরত বিদেশি শিক্ষার্থীদের যুক্তরাষ্ট্র ছেড়ে যেতে হবে।

unnamed

 

যুক্তরাষ্ট্রে অধ্যয়নরত বিদেশি শিক্ষার্থীদের দেশটি ছাড়তে হতে পারে বলে ঘোষণা দিয়েছে সেখানকার অভিবাসন ও শুল্ক প্রয়োগকারী সংস্থা।

সোমবার এক বিবৃতিতে সংস্থাটি জানিয়েছে, যেসব শিক্ষাপ্রতিষ্ঠান অনলাইন ভিত্তিক পাঠদান চালু করবে সেসব প্রতিষ্ঠানে অধ্যায়নরত সব বিদেশি শিক্ষার্থীকে যুক্তরাষ্ট্র ছেড়ে যেতে হবে।

সংস্থাটির এমন ঘোষণার ফলে হাজার হাজার বিদেশি শিক্ষার্থী যারা যুক্তরাষ্ট্রে বিশ্ববিদ্যালয়ে পড়ছেন বা বিভিন্ন প্রশিক্ষণ কর্মসূচিতে অংশ নিতে সেখানে বসবাস করছেন তারা শঙ্কায় পড়েছেন বলে মঙ্গলবার সিএনএনের এক প্রতিবেদনে বলা হয়েছে।

করোনা মহামারীর কারণে যুক্তরাষ্ট্রের বিভিন্ন বিশ্ববিদ্যালয় ইতোমধ্যে অনলাইনে পাঠদান কার্যক্রম শুরু করেছে। উদাহরণস্বরুপ, হার্ভার্ড বিশ্ববিদ্যালয় তাদের সব কোর্স অনলাইনে পড়ানো শুরু করেছে। এমনকি সেখানকার আবাসিক শিক্ষার্থীদেরও অনলাইনে ক্লাস করতে হচ্ছে।

যুক্তরাষ্ট্রের বিশ্ববিদ্যালয়গুলো আকর্ষণীয় স্কলারশিপ দেওয়ার কারণে উচ্চ শিক্ষার জন্য বিশ্বের নানা প্রান্তের মেধাবী শিক্ষার্থীদের প্রধান গন্তব্য। যে দেশটি সারা বিশ্ব থেকে শিক্ষার্থীদের নিতো এখন তারাই দেশ ত্যাগ করতে বলছে। এর ফলে বিদেশি শিক্ষার্থীরা তাদের ভবিষ্যৎ নিয়ে দুশ্চিন্তায় পড়েছেন।

এমন একজন শিক্ষার্থী ভ্যালোরিয়া ম্যান্ডিওলা। তিনি হার্ভার্ড কেনেডি স্কুলে অধ্যায়নরত। ভ্যালোরিয়া সিএনএনকে বলেন, অভিবাসন বিভাগের এই সিদ্ধান্ত খুবই হতাশাজনক। যদি আমাকে যুক্তরাষ্ট্র ছাড়তে হয় তাহলে আমি আমার দেশ মেক্সিকো যেতে পারবো। কিন্তু এখানে অনেক শিক্ষার্থীই আছেন যারা এই মুহূর্তে তাদের দেশে ফিরতে পারবেন না।

%d bloggers like this: