Skip to content

আল্লাহ চাইলে সংকট কাটিয়ে সবাই মিলে নতুন একটি ভোর দেখবো।

zayed-000002
এফডিসিতে নিয়মিত আসা-যাওয়া যাদের। জীবিকার প্রয়োজনে এই করোনাকালেও ছুটতে হচ্ছে বিভিন্ন কাজে। তাদের মুখে নিম্ন মানের মাস্ক। যা ঝুঁকি এড়াতে সক্ষম নয়। এমন শিল্পী ও কলাকুশলীসহ এফডিসিতে নানা কাজের সঙ্গে যুক্ত মানুষদের মাস্ক বিতরণ করা হলো বাংলাদেশ চলচ্চিত্র শিল্পী সমিতির পক্ষ থেকে।

আজ মঙ্গলবার দুপুরে এফডিসিতে সমিতির সাধারণ সম্পাদক চিত্রনায়ক জায়েদ খান ৪০০ টি উন্নত মানের মাস্ক বিতরণ করেন।শিল্পী সমিতির এই নেতা আরটিভি নিউজকে বলেন, আমাদের সচ্ছল শিল্পীরা সচেতন। তারা করোনার এই সময়ে স্বাস্থ্যবিধি মেনে চলছেন। কিন্তু আমার এই সকল ভাই-বোনেরা অনেকেই মাস্কের ঠিক মতো ব্যবহারও জানেন না। তাদেরকে আজ উন্নতমানের ‘কেএন-95’ মাস্ক দিয়েছি। সমিতির পক্ষ থেকে বেশ কয়েকবার খাদ্যসামগ্রী উপহার হিসেবে দেয়া হয়েছে। এখন তাদের মাঝে জীবনের ঝুঁকি এড়াতে এই মাস্ক বিতরণ করা হলো। সমিতি সব শিল্পীর ব্যাপারেই খোঁজ খবর রাখছে।জায়েদ খান আরও বলেন, সংকটকালীন সময়েই সামনে ঈদ আসছে। কিন্তু নিরাপত্তার কথা ভেবে বেশির ভাগ শুটিং বন্ধ রয়েছে। ফলে অনেকেই আগামীদিনে সংকটে পড়তে পারেন। প্রতি ঈদের মতো আগামী ঈদেও সমিতির পক্ষ থেকে উপহার সামগ্রী দেয়ার পরিকল্পনা চলছে। আল্লাহ চাইলে সংকট কাটিয়ে সবাই মিলে নতুন একটি ভোর দেখবো।

%d bloggers like this: